Saturday, January 18, 2020

সকল Ssk msk সরকারপন্থী সংগঠনের প্রতি আহবান

সকল Ssk msk সরকারপন্থী সংগঠনের প্রতি আহবান




সমস্ত msk ssk এর শিক্ষকদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়ে কিছু কথা । 60 or 65 option যে যেমন নেওয়ার নিয়ে নিয়েছেন । তবুও উভয়েই দুশ্চিন্তার মধ্যে রয়েছেন। প্রথমে বলি ssk msk  হল E g s  centre.  2010 এই কেন্দ্র গুলিকে বোডের আনূমোদন দিয়ে শিক্ষকদের বেতন পরিকাঠামোর মধ্যে নিয়ে আসতে বলা হয়েছিল । সেই সময়ে হয়নি । দীর্ঘ আট বছর পর  ঐ এক ই নির্দেশ গত 13.01.2019. তারিখ আসে । আমাদের বেতনের সিংহভাগই কেন্দ্র সরকারের সর্বশিক্ষা দপ্তর থেকে হয় । সারা দেশে শিক্ষার অধিকার আইন বাস্তবায়ন করতে চাইছে কেন্দ্র । এটা করতে হলে প্রজেক্ট এর অধীন কোনো স্কুল যেমন রাখতে পারবে না ।তেমনি প্রজেক্ট এর অধীন কোনো শিক্ষক ও রাখতে পারবে না ।শিক্ষকদের উপযুক্ত বেতন পরিকাঠামোর মধ্যে নিয়ে আসতেই হবে । এই প্রক্রিয়ার মধ্যে নিয়ে না আসলে কেন্দ্র ফান্ডিং বন্ধ করে দিবে ।তখন রাজ্যকে এর পুরো দায় ভার নিতে হবে । ঠিক এই কারণেই রাজ্য সরকার উদ্যোগ নিয়েছে ।এখন সমস্যা হচ্ছে আমাদের বয়স নিয়ে । সমগ্র শিক্ষার মূল স্রোতে ঢুকতে হলে service age অবশ্য ই 60 option রাখতে হবে । না হলে কোনো দিনও তারা মানবে না ।এখানে রাজ্যের করার কিছুই নেই । সুবিধা কি পাবে সেটা পরের ব্যাপার ।কিন্তু মূল স্রোতে থাকতে হলে আপনাকে 60 option টায় নিতে হবে । 60 না নিলে আপনি যেমন ছিলেন তেমন থাকবেন । এখন এই নিয়ে পড়ে থাকলে হবে না ।আগামী দিনে বোডের আনূমোদন সহ msk তে নবম দশম এবং ssk তে পঞ্চম শ্রেণি চালু করা একটা বড়ো কাজ বাকি ।এছাড়াও রয়েছে deled এর nc এর সমস্যা । 60 or 65 option যে যায় নিয় না কেন উভয়ের ই সুবিধার জন্য কাজ চালিয়ে যেতে হবে ।এখানে একটা বিষয মাথায় রাখতে হবে 2021 এ বিধান সভা নির্বাচন ফলে এই বছরটা আমাদের কাছে খুবই গুরুত্ব পূর্ণ ।আরো একটা বিষয় লক্ষ্য করবেন ।প্যারাটিচাররা এক মাসের উপর আন্দোলন করল ।মন্ত্রী তাদের সাথে আলোচনায় বসলেন ।সেখানে যারা আন্দোলনে যায় নি অরথাত তৃণমূল পন্থী সংগঠন তাদের কেউ কিন্তু ঐ আলোচনায় ডেকে ছিল । আবারও দেখুন msk ssk এর ক্ষেত্রেও দেখা গেল যারা সাত সাত 14 দিনের আন্দোলনে অংশ গ্রহণ করে নি অরথাত তৃণমূল পন্থী সংগঠন কেউ গুরুত্ব দিয়ে 12  ও 14. 7.19. দুদিনের বৈঠকে  minister তাদের কেউ ডেকে ছিলেন ।ফলে বোঝায যাচ্ছে minister এর কাছে সরকার পন্থী সংগঠনের মূল্য অনেক বেশি ।এখন সমস্যা হল কারা সরকার পন্থী সংগঠন ।এই মুহূর্তে তারা বিভাজিত ।এটা কাজ আদায়ের পক্ষে ক্ষতিকর ।ফলে যারা অন্তত পক্ষে দাবি করছে আমরা তৃণমূল ।তাদের কে সার্বিক সারথে অতীত ভুলে এক জায়গা আসতে হবে । অন্য সংগঠনের পক্ষে লোক যত ই  বেশি থাকনা কেন গুরুত্বের বিচারে সরকার পন্থী সংগঠনের মূল্য অনেক বেশি । ফলে আবারো সকলের কাছে আহবান আপনারা একত্রিত হোন ।

No comments:

Post a Comment

এখন যদি করেন কেস , অচিরে ই হবেন শেষ

এখন যদি করেন কেস , অচিরে ই  হবেন শেষ    প্রচলিত অনেক কথা আছে ------ "শিকারী বিড়ালের গোঁফ দেখলেই চেনা যায়  বা   মায়ের চেয়ে মাসির দরদ বেশ...